উজিরপুরে আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান,সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সভাপতি, চিরকুমার গৌরাঙ্গ লাল কর্মকারের মৃত্যুতে হাসানাত, মেননের শোক

উজিরপুরে আওয়ামীলীগ নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান , সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সভাপতি ,চির কুমার গৌরাঙ্গ লাল কর্মকারের মৃত্যুতে হাসানাত,মেননের শোক।

উজিরপুর প্রতিনিধি ঃ বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, উপজেলা সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সভাপতি , ইউনিয়ন আাওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি, উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা ও আওয়ামীলীগের চরম দুর্দিনের ত্যাগী সৎ কান্ডারি, চির কুমার, আজন্ম পরোপকারী গৌরাঙ্গ লাল কর্মকার ৮৩ বছর বয়সে বার্ধক্য জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ জানুয়ারী শুক্রবার রাত তিনটায় মৃত্যুবরন করেছন৷

তার মৃত্যুতে গভির শোক প্রকাশ করেছেন বরিশাল – ১ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ ও বরিশাল ২ আসনের নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও ১৪ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা কমরেড রাশেদ খান মেনন। রাশেদ খাঁন মেনন ও আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ গৌরাঙ্গ লাল কর্মকারের মৃত্যুতে গভির শোক প্রকাশ করে বলে তিনি একজন সৎ আদর্শবাদি মানুষ ছিলেন এবং নিজে চির কুমার থেকে আজন্ম পরোপকারী হিসাবে মানুষের সেবা করে গেছেন। তিনি আওয়ামীলীগের একজন ভ্যানগার্ড ছিলেন। শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়ে আরো শোক প্রকাশ করেছেন বরিশাল ২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ তালুকদার মোঃ ইউনুস , সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ শাহে আলম , প্রখ্যাত কন্ঠ শিল্পী হারমনিয়ামের জাদুকর নকুল কুমার বিশ্বাস ,উজিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এস এম জামাল হোসেন , সহ সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আঃ মজিদ সিকদার বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারি ,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল , উপজেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড ফাইজুল হক বালি ফারাহিন ,সম্পাদক সীমা রানী শীল , কেন্দ্রীয় সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম জুলফিকার , জেলা সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সভাপতি আব্দুল রাজ্জাক তালুকদার , উজিরপুর উপজেলা সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আঃ রহিম সরদার উজিরপুর সাংবাদিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ । তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। সাবেক ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম জাকারিয়া জানান গৌরাঙ্গ লাল কর্মকার ৫ ভাই ৫ বোনের মধ্যে তৃতীয় তবে কেহই বাংলাদেশে নেই । স্বাধীনতার পূর্বে সবাই ভারত চলে গেছে । মুক্তি যোদ্ধাদের সময় পাকিস্তানিরা তার ঘরবাড়ি পুরিয়ে দেওয়ার পরে আর কোন ঘরদরজা করেননি । বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বাড়িতে তিনি বসবাস করতেন । তিনি চির কুমার , পরো উপকারী ছিলেন । যদিও পরিবারে তার নিকট স্বজন বলতে কেউ পাশে নেই৷ তবে বংশের কিছু লোক আর এলাকার লোকজনই তার স্বজন হিসাবে রেখে গেছেন। গৌরাঙ্গ লাল কর্মকার গত ১০ দিন থেকে বার্ধক্য জনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ সাইফুল ইসলামের নিবিড় তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ১৯ জানুয়ারী শুক্রবার দুপুরে বামরাইল ইউনিয়নের হস্তুিশুন্ড গ্রামে তার সবদেহ সৎকার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *