ফরিদপুর-১ আসনে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে পারবেনা চক্রান্তকারীরা:দোলন

ফরিদপুর-১ আসনে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে পারবে না চক্রান্তকারীরা: দোলন

ফরিদপুর প্রতিনিধি
ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় তিনটি মন্দিরে প্রতিমা ভাঙচুরে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও ঢাকা টাইমস সম্পাদক আরিফুর রহমান দোলন।

তিনি বলেন, ‘আলফাডাঙ্গায় শত-শত বছর ধরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি চলে আসছে। এই সম্প্রীতি বিনষ্ট করার সুযোগ কাউকেই দেবো না। কেউ এমন অপচেষ্টা চালালে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করা হবে। আগামী দিনে সব ধর্মের মানুষের মধ্যে পারস্পারিক সম্প্রীতি আরো সুদৃঢ় হবে।’

আলফাডাঙ্গার সদর বাজার চৌরাস্তায় রবিবার সকালে এক মানববন্ধনে অংশ নিয়ে একথা বলেন আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দোলন। এসময় তিনি নির্বাচনের আগে অশুভ শক্তি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত বলেও অভিযোগ করেন।

উপজেলা ও পৌর পূজা উদযাপন পরিষদ এবং হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে অংশ নেন সনাতন সম্প্রদায়ের প্রায় সব সংগঠন এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ব্যক্তিবর্গ।

দোলন বলেন, ‘বিজয়ের মাসে অশুভ শক্তি আলফাডাঙ্গার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার সবসময় দুষ্কৃতকারীদের, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার। আলফাডাঙ্গার সর্বস্তরের মানুষ, হিন্দু-মুসলিম ভাই-ভাই মিলে এই অশুভ শক্তিকে আমরা প্রতিহত করবো।’

আলফাডাঙ্গায় শৈশব থেকে যাদের সঙ্গে বেড়ে উঠেছেন তাদেরকে ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে মন্দিরে হামলার বিচার চাইতে দেখা তাঁর জন্য দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেন দোলন।

তিনি বলেন, ‘একটি বিশেষ গোষ্ঠী আমাদের মধ্যে ঐক্যকে বিনষ্ট করে ফায়দা লুটতে চায়। তাই এই মন্দিরে প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটিয়েছে। বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করা শেখ হাসিনার অঙ্গীকার। যারা শেখ হাসিনার এই অঙ্গীকারের বাইরে গিয়ে ফায়দা লুটতে চান, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে আঘাত দিতে চান, হিন্দু-মুসলিম বিভেদ সৃষ্টি করতে চান, আপনারা সফল হবেন না।’

ফরিদপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী দোলন বলেন, ‘রাতের আঁধারে যতই মুখোশধারীরা আমাদের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার চেষ্টা চক্রান্ত করুক না কেন আমরা এক এবং ঐক্যবদ্ধ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে অপরাধী ও তাদের মদদদাতা পৃষ্ঠপোষকদের চেহারা জনসম্মুখে প্রকাশের দাবি জানাই। অপরাধীরা যেন কেউ পার না পায়।’

চক্রান্তকারীদের কোনোভাবেই সফল হতে না দেওয়ার প্রত্যয় রেখে কৃষক লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি দোলন বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা একটি অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন করার জন্য প্রশাসনকে কঠোর হতে নির্দেশ দিয়েছেন। শুধু আলফাডাঙ্গা নয়, বোয়ালমারী ও মধুখালীতেও মুখোশধারীরা যেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে না পারে সেজন্য বিজ্ঞ নির্বাচন কমিশনকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাই।’

সংখ্যালঘুদের ভয়ভীতি দেখিয়ে, আতঙ্ক ছড়িয়ে নির্বাচন প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা ঐক্যবদ্ধ হয়ে ঠেকানোর আহ্বান জানিয়ে দোলন আরও বলেন, ‘আজকে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে আলফাডাঙ্গাবাসী প্রমাণ করেছে আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি শতভাগ বজায় রাখতে ঐকবদ্ধ হয়ে কাজ করবো।’

#

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *